সাম্প্রতিক খবর

Youth For Change Bangladesh, Tuesday December 5,2023
"End the Silence, Stop the Violence: 16 Days of Activism"

On December 5, 2023, Youth For Change Bangladesh organized the "End the Silence, Stop the Violence: 16 Days of Activism" awareness campaign at Parachara High School in Parachara Union, Khagrachari, under the Y-Moves Project with support from Zabarang Kalyan Samity and Plan International Bangladesh. The event, part of the Y-Moves Project, aimed to empower youth to advocate against gender-based violence.

A highlight was the innovative "Advocacy Hunt" game, engaging participants in advocating for tailored policies and combating violence. The event also featured a discussion panel, an awards ceremony, and an "Interactive Arts for Change" segment, emphasizing the transformative power of the arts. Esteemed guests shared insights, contributing to a powerful dialogue on positive change. The event successfully promoted awareness and action against gender-based violence in hill areas.

News Link: 16 Days of Activism

Youth Engagement for Sustainability (YES), Bangladesh, Tuesday October 31,2023
এক ঘন্টার ক্রীড়া অফিসার ‘রাইসা বিনতে মাসুদ

এক ঘন্টার জেলা ক্রীড়া অফিসার হিসেবে দায়িত্বে বসেন শিশু সংগঠন ন্যাশনাল চিলড্রেন’স টাস্ক ফোর্স (এনসিটিএফ) নীলফামারীর শিশু সাংসদ সদস্য রাইসা বিনতে মাসুদ। সোমবার দুপুর ১২টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত নীলফামারী জেলা ক্রীড়া কর্মকর্তার চেয়ারে বসে এই দায়িত্ব পালন করেন রাইসা। যদিও দায়িত্ব পালনটি ছিলো প্রতিকি। এ সময় ফুল দিয়ে তাকে অভিবাদন জানান জেলা ক্রীড়া অফিসার আবুল হাসেমসহ দফতরটির অন্যান্যজন। দায়িত্ব নিয়ে রাইসা বিনতে মাসুদ জানান, একজন ক্রাড়ীবিদ হওয়ায় এটি আমার জন্য গর্বের বিষয়। ভবিষ্যতে বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গণকে এগিয়ে নিতে আমাকে অনুপ্রাণিত করবে। আর্চারী খেলোয়ার রাইসা এক ঘন্টার দায়িত্বে ‘সুস্থ দেহ সুস্থ মন, খেলার কোনো বিকল্প নাই’ শ্লোগানে সবার আগে সকল শিশুর জন্য খেলার মাঠ উন্মুক্ত করাকে গুরুত্ব দিয়েছেন। এনসিটিএফ সুত্র জানায়, এবারের কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষে “গার্লস টেকওভার” কর্মসুচির অংশ হিসেবে মেয়েদের ক্ষমতা ও সক্ষমতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সারাদেশে বিভিন্ন দফতর প্রধানের প্রতিকি দায়িত্ব পালন করেন এনসিটিএফ শিশুরা। ইয়েস বাংলাদেশ নীলফামারীর ভলান্টিয়ার নাইমুর রহমান অনুষ্ঠানের শুরুতে আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবসের গুরুত্ব তুলে ধরেন এবং গার্লস টেকওভার সম্পর্কে সকলকে অবগত করেন। নাইমুর রহমান বলেন, এই টেকওভার একটা প্রতীকি অনুষ্ঠান, যার মাধ্যমে মেয়ে শিশুরা সিদ্ধান্ত গ্রহণের আসনে বসতে পারে এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠান গুলো ও নারীর ক্ষমতায়নের চিত্র ফুটে ওঠে। জেলা ক্রীড়া অফিসার আবুল হাশেম বলেন, আজকের শিশুরা আগামী দিনের ভবিষ্যত। তারা আজকে যে স্বপ্ন লালন করবে পরবর্তীতে তারা সেই স্বপ্ন পূরণে কঠোর অধ্যবসায় করবে। এ রকম কর্মসূচিকে সাধুবাদ জানাই।

অনলাইন নিউজ লিংক: ফাইনান্সিয়াল পোস্ট

Youth Engagement for Sustainability (YES), Bangladesh, Monday October 30,2023
নীলফামারী জেলা ক্রীড়া কর্মকর্তার প্রতিকী দায়িত্বে শিশু শিক্ষার্থী রাইসা

জেলা ক্রীড়া কর্মকর্তার প্রতিকী দায়িত্ব পালন করলেন শিশু শিক্ষার্থী রাইসা বিনতে মাসুদ। আজ সোমবার দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত এক ঘন্টা জেলা ক্রীড়া কর্মকর্তার কার্যালয়ে ওই দায়িত্ব পালন করেন। শিশু সংগঠন ন্যাশনাল চিলড্রেনস টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ) জেলা শাখা প্রতিকী এ দায়িত্ব পালনের আয়োজন করে। প্রতিকী দায়িত্ব পালনে কার্যালয়ে প্রবেশের সঙ্গে তাকে ফুল দিয়ে বরণ করেন জেলা ক্রীড়া কর্মকর্তা আবুল হাসেমসহ দপ্তরটিতে কর্মরতরা। এরপর কর্মকর্তার চেয়ারে বসে সারেন প্রতিকী নানা দাপ্তরিক কাজ। এসময় ইয়েস বাংলাদেশ নীলফামারীর স্বেচ্ছাসেবক নাইমুর রহমান প্রতিকী এ দায়িত্বের গুরুত্ব তুলে ধরেন এবং গার্লস টেকওভার সম্পর্কে সকলকে অবগত করেন। নাইমুর রহমান জানান, এবারের কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষে ‘গার্লস টেকওভার’ কর্মসূচির অংশে মেয়েদের ক্ষমতা ও সক্ষমতা নিশ্চিত করার লক্ষে বিভিন্ন দপ্তর প্রধানের প্রতিকী দায়িত্ব পালন করছে এনসিটিএফ এর শিশুরা।

প্রতিকী এই দায়িত্বের মাধ্যমে মেয়ে শিশুরা সিদ্ধান্ত গ্রহণের আসনে বসতে পারবেন। দায়িত্ব বসে রাইসা বিনতে মাসুদ বলেন, ‘একজন ক্রীড়াবিদ হওয়ায় এটি আমার জন্য গর্বের বিষয়। ভবিষ্যতে বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গণকে এগিয়ে নিতে আমাকে অনুপ্রাণিত করবে। এক ঘন্টার ওই দায়িত্বে ‘সুস্থ দেহ সুস্থ মন, খেলার কোনো বিকল্প নাই’ শ্লোগানে সবার আগে সকল শিশুর জন্য খেলার মাঠ উন্মুক্ত করাকে গুরুত্ব দিয়েছি আমি’। নীলফামারী সরকারি চালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী রাইসা একজন আর্চারী খেলোয়ার। জেলার শিশু সংগঠন এনসিটিএফ এর সদস্য সে। জেলা ক্রীড়া কর্মকর্তা আবুল হাশেম বলেন, ‘আজকের শিশুরা আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তারা আজকে যে স্বপ্ন লালন করবে পরবর্তীতে তারা সেই স্বপ্ন পূরণে কঠোর অধ্যবসায় করবে। এ রকম কর্মসূচিকে সাধুবাদ জানাই’।

অনলাইন নিউজ লিংক: বিএসএস নিউজ

Youth Engagement for Sustainability (YES), Bangladesh, Monday October 30,2023
ভোলায় এক ঘন্টার জন্য সিভিল সার্জেন এর দায়িত্ব নিলেন হুমায়রা তানহা

অন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষ্যে ভোলায় এক ঘণ্টার জন্য প্রতীকি সিভিল সার্জেন দায়িত্ব নিলেন ভোলা সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেনীর শিক্ষার্থী হুমায়রা তানহা । সোমবার দুপুর ১২ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত ভোলার সিভিল সার্জেন হিসাবে তিনি এই প্রতীকি দায়িত্ব পালন করেন। এসময় ভোলার সিভিল সার্জেন ডা:কেএম শফিকুজ্জামান প্রতীকি দায়িত্ব হিসাবে সম্পর্কে ধারণা দেন।

এসময় হুমায়রা তানহা কে ফুলের শুভেচ্ছা জানিয়ে নিজের পাশের চেয়ারে বসতে দেন সিভিল সার্জেন।দায়িত্ব পেয়ে অনুপ্রনিত দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী তানহা। ভবিষ্যতের লক্ষ্যও তুলে ধরেন তিনি। প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এর ‘গার্লস টেকওভার’ কর্মসূচির আওতায় ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ) সহযোগিতায় ইয়েস বাংলাদেশ ও ইয়ুথ ফর চেঞ্জ-এর আয়োজনে ‘গার্লস টেকওভার’ শীর্ষক কর্মসূচিতে কন্যা শিশু যুব নারীকে নেতৃত্ব উদ্বুদ্ধকরণ মেয়েদের আত্মবিশ্বাস তৈরীর সুযোগ বৃদ্ধির কর্মসূচীর আওতায় এক ঘন্টার জন্য প্রতীকি সিভিল সার্জন দায়িত্ব পালন করা হয়। প্রতীকি সিভিল সার্জন এর দ্বায়িত্ব নিয়ে হুমায়ারা তানহা বলেন,আজ ভোলার সিভিল সার্জন এর প্রতীকি দায়িত্ব পালন করতে পেরে অসাধারণ ভালো লাগছে। আজকের এই দিনটি জন্য আমি অনেক অপেক্ষায় ছিলাম।

আজকের এই দিনটির জন্য গত ৫ দিন যাবৎ আমি এই পেশা সম্পর্কে জানতে পেরেছি। আজ যখন আমি এই আসনটিতে বসেছি তখন থেকেই আমি সপ্নদেখতে শুরু করেছি আমি এবং আমার মতো কিশোর কিশোরীরা এমন পর্যায় পৌচ্ছাতে পারবে। আমি সপ্ন দেখছি যে আমাদের এই গুরুত্বপূর্ণ পদে ভবিষ্যতে নারীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে,অনুপ্রেরণাও উৎসাহ পাবে নিজেদের স্বপ্ন গুলো পূরন করার জন্য যেমন আজকে আমি আতœবিশ্বাসী হয়েছি এক ঘন্টা সিভিল সার্জন দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে। এ সময় তিনি ভোলার স্বাস্থ্য সেবা মান উন্নয়নের জন্য একাধিক সুপারিশ করেন, যার মধ্যে অন্যতম ভোলায় একটি শিশু হাসপাতাল তৈরি,পাশাপাশি ভোলার ২২ লাখ জনসংখ্যা জন্য একটি মেডিকেল কলেজ স্থাপন করার পাশাপাশি জেলার হাসপাতাল গুলোতে ডাক্তার, নার্স সহ জনবল বৃদ্ধির সুপারিশ করেন তিনি। এছাড়াও তিনি বলেন, বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার এক পঞ্চমাংশ কিশোর-কিশোরী।এই মোট কিশোর-কিশোরীর ৪৮ শতাংশ কিশোরী এবং ৫৩ শতাংশ কিশোর। কিন্তু এই কিশোর কিশোরীদের জন্য ইউনিয়ন স্বাস্থ্যা কেন্দ্র কিংবা হাসপাতালে সেবা নেওয়ার জন্য আলাদা ব্যবস্থার সেবার মান বৃদ্ধি করার কথা বলেন। আর সিভিল সার্জন ডাঃ কে,এম শফিকুজ্জামান বলেন,বাংলাদেশের নারীরা আজ এগিয়ে যাচ্ছে।

বর্তমানে দেশের সরকার প্রধান নারী,বিরোধীদলীয় নেত্রী নারী ,জাতীয় সংসদের স্পিকারও এক জন নারী ডাঃ নারী, সিভিল সার্জন নারী, নার্স নারী।সে ক্ষেত্রে প্রান্তিক গ্রামে বা দ্বীপ অঞ্চলের নারী ও কিশোরীরা অনেক পিছিয়ে রয়েছে। কলেজ শিক্ষার্থী হুমায়ারা তানহা ওই কিশোরীদের আইকন হিসেবে পরিচিতি পাবে।তাকে দেখেই শিশু ও কিশোরী মুক্তমনা হিসেবে বেড়ে উঠবে। এবং দেশের সর্বোচ্চ পদগুলো অর্জনের মাধ্যমে ভবিষ্যতে নেতৃত্ব দেওয়া সাহস যোগাবে। নারীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে আমাদের সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। তিনি আরও বলেন,তানহা আজ যেই সুপারিশ করেছে তা ভোলার স্বাস্থ্য উন্নয়নের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ভোলা সিভিল সার্জন অফিস মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ ফাহমিদ খান,ভোলা সদর হাসপাতাল সিনিয়র স্টাফ নার্স নাজমা বেগম, ন্যাশনাল চিলড্রেন’স্ টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ) এর ভলেন্টিয়ার রিমা আক্তার শিমু, মোঃ শাফায়েত হোসেন সিয়াম সহ হাসপাতালের ডাক্তার, নার্স,সাংবাদিক ও এনসিটিএফ বাংলাদেশ এর ভোলা জেলা কমিটির সদস্য ওস্বেচ্ছাসেবক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। হুমায়রা তানহা ভোলা সরকারি দ্বাদশ শ্রেনীর বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী এবং ভোলা পৌরসভা ৩নং ওয়ার্ড কালি বাড়ি রোড এলাকার মো: হুমায়ুন কবির এর কন্যা। তানহা ন্যাশনাল চিলড্রেনস টাস্ক ফোর্স (এনসিটিএফ)ভোলা জেলা কমিটির সহ সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন । শিশু কিশোরদের প্রতীকী দায়িত্ব পালনের মধ্য দিয়ে তাদের নেতৃত্বের গুণাবলী তৈরি হবে বলে মনে করেন জেলার সচেতন নাগরিক সমাজ।

অনলাইন নিউজ লিংক: সবুজ বাংলা

Youth Engagement for Sustainability (YES), Bangladesh, Monday October 30,2023
ভোলায় এক ঘন্টার প্রতিকী সিভিল সার্জন হলেন কলেজছাত্রী

ভোলায় এক ঘন্টার প্রতিকী সিভিল সার্জন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী। আজ সোমবার (৩০ অক্টোবর) দ্বীপজেলা ভোলায় ইয়েস বাংলাদেশ ও ইয়ুথ ফর চেঞ্জ এর আয়োজনে প্লান ইন্টারন্যাশনাল এর বৈশ্বিক কার্যক্রম গার্লস টেকওভার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ব কন্যা দিবস উদযাপন উপলক্ষে গার্লস টেকওভারের মাধ্যমে ভোলা জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ কে এম শফিকুজ্জামান প্রতিকী সিভিল সার্জন হিসেবে কলেজ শিক্ষার্থী হুমায়রা তানহা কে দায়িত্ব পালনের সুযোগ করে দেন। সে এনসিটিএফ, ভোলা জেলার সহ-সভাপতি। এসময় ভোলা জেলার সিভিল সার্জন ১ ঘন্টার প্রতিকী সিভিল সার্জনকে ফুল দিয়ে বরন করে নেন।

প্রতিকী সিভিল সার্জনের দায়িত্ব পালনকালে হুমায়রা তানহা এরকম একটি প্রতিকী দায়িত্ব পাওয়ায় আনন্দ প্রকাশ করেন এবং বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরেন। ভোলা জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ কে এম শফিকুজ্জামান বলেন, গার্লস টেকওভারের মতো এরকম আয়োজনের ফলে কন্যা শিশুদের মধ্যে আত্নবিশ্বাস জন্ম নিবে। এসময় ইয়েস বাংলাদেশ, ভোলা জেলার সাধারণ সম্পাদক ও ডিস্ট্রিক্ট ভলান্টিয়ার মোঃ শাফায়াত হোসেন (সিয়াম) এর সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন ভোলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ এবং এনসিটিএফ, ভোলা জেলার সদস্য ও ইয়েস বাংলাদেশ, ভোলা জেলার সদস্যরা সহ আরো অনেকে।

অনলাইন নিউজ লিংক: ভোলা প্রকাশ