অপরাজেয়-বাংলাদেশ সম্পর্কে

অপরাজেয়-বাংলাদেশ সম্পর্কে

অপরাজেয়-বাংলাদেশ (এবি) একটি জাতীয় পর্যায়ের অলাভজনক শিশু অধিকার বাস্তবায়নকারী সংস্থা। সংস্থাটি ১৯৯৫ সাল থেকে সারা বাংলাদেশের সুবিধাবঞ্চিত ও অধিকার বঞ্চিত শিশু, যুব সমাজ ও দুঃস্থ নারীদের জীবনমান উন্নয়নে সব রকম কার্যক্রম পরিচালনা করছে । যার মাধ্যমে এই সকল জনগোষ্ঠী তাদের অধিকার সম্পর্কে সচেতন হয়, অধিকার চর্চা করতে পারে, এলাকার বা রাষ্ট্রের সম্পদের অংশীদার হতে পারে এবং সমাজের মূল শ্রোত ধারায় একজন দক্ষ, উৎপাদনক্ষম ও দায়িত্ববান নাগরিক হিসেবে অংশগ্রহন করতে পারে।অপরাজেয় ২২৫,০০০ জন সুবিধাবঞ্চিত শিশু, ৩৫,০০০ দুঃস্থ নারী ও ১,০০০,০০০ কমিউনিটির সার্বিক উন্নয়নে সহায়তা প্রদান করে আসছে।

অপরাজেয় শিশুকেন্দ্রিক ও কমিউনিটি উন্নয়ন পদ্ধতি গ্রহণের মাধ্যমে গুণগত কর্মসূচী প্রদানে বদ্ধপরিকর। আমরা বিশ্বাস করি উন্নয়নের ক্ষেত্রে অধিকার ভিত্তিক পদক্ষেপ গ্রহণে, কমিউনিটি গুলোকে উন্নয়ন অবকাঠামো বিনির্মাণে এবং প্রয়োজনীয় দক্ষতা অর্জনে সহায়তা করা যাতে একটি নিরাপদ ও স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত হয় এবং শিশুরা তাদের অন্তর্নিহিত মেধার বিকাশ ঘটাতে সক্ষম হবে। আমরা স্বীকার করি যে, শিশুদের কল্যাণসমুহ মৌলিকভাবে কমিউনিটি সংশ্লিষ্ট এবং শিশুদের জীবনমান তখনই উন্নত হবে, যখন তাদের নিজেদের পরিবার এবং কমিউনিটির সার্বিক উন্নয়ন একইসাথে সাধিত হবে। কমিউনিটির উন্নয়নে তাদের স্বার্থ ও চাহিদা পূরণ নিশ্চিত করণে কমিউনিটি সমুহ পরিবার, যুব সমাজ ও শিশুদের সক্রিয় অংশগ্রহণ করতে উৎসাহিত করা হয়।

স্বচ্ছ মানদন্ড এবং বিধি-বিধান অনুসারে আমাদের অধিকার ভিত্তিক পদক্ষেপসমুহ নির্দেশিত হয়, যা শিশু অধিকারের আন্তর্জাতিক নির্দেশনা তথা জাতিসংঘ শিশু অধিকার বিষয়ক আন্তর্জাতিক সনদ কর্তৃক প্রদেয়। শিশু অধিকার সংরক্ষণ এবং বোধগম্যতার জন্য শিশু, যুব সমাজ পরিবার কমিউনিটিসহ সরকার এবং অন্যান্যদেরকে সচেতন করার চেষ্টা করা হয়। অঙ্গীকার গুলোর বাস্তবায়নে যারা অধিকার সমুহের স্বীকৃতি এবং সহায়তা প্রদানে নিশ্চয়তা দেন তাদের কর্মপ্রয়াস গ্রহণ করা হয় দায়িত্বপ্রাপ্তদের দক্ষতার উন্নয়ন ঘটানো হয়। অধিকার ভিত্তিক পদক্ষেপসমুহ গ্রহণের মাধ্যমে আমরা শুধুমাত্র স্বল্পমেয়াদী কর্মকান্ডের উপর নির্ভরশীল না হয়ে দীর্ঘমেয়াদী টেকসই ইতিবাচক পরিবর্তনের উপর আলোকপাত করি। আজকের শিশু এবং আগামী দিনের শিশুদের ভবিষ্যৎ সরকারের নীতিমালায় পরিবর্তন গুলোতে অর্ন্তভুক্ত এবং প্রায়োগিক দিকসমুহর শক্তিশালি করণ এবং উন্নয়ন দ্বারা বিস্ত্রিত ভাবে প্রভাবিত হতে পারে।